শিক্ষা কার্যক্রম :

★ কিতাব বিভাগে ছয় মারহালায় মোট ১২ টি ক্লাস।

সর্বোচ্চ ক্লাস তাকমীল ফিল হাদীস (মাস্টার্স সমমান)

ছয় মারহালা হচ্ছে-

(১) মারহালা তাকমীল- তাকমীল ফিল হাদীস (মাস্টার্স ইন ইসলামিক স্টাডিজ এণ্ড এরাবিক ল্যামগগুয়েজ)

(২) মারহালা ফজিলত: ফজিলত ২য় বর্ষ (মিশকাত), ফজিলত ১ম বর্ষ (জালালাইন)

(৩) মারহালা সানাবিয়্যাহ উলয়া: সানাবিয়্যাহ উলয়া ২য় (মুখতাসার), সানাবিয়্যাহ উলয়া ১ম (শরহে জামী)

(৪) মারহালা সানাবিয়্যাহ আম্মাহ: সানাবিয়্যাহ আম্মাহ ২য় (কাফিয়া), সানাবিয়্যাহ আম্মাহ ১ম (হেদায়াতুন্নাহু)

(৫) মারহালা মুতাওয়াসসিতা: মুতাওয়াসসিতা ৩য় (নাহুমীর), মুতাওয়াসসিতা ২য় (সারফ), মুতাওয়াসসিতা ১ম

(৬) মারহালা ইবতিদাইয়াহ: ইবতিদায়ী ৫ম, ইবতিদায়ী ৪র্থ।

এর মধ্যে ৭ টি জামাত বোর্ড পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে, বাকি ৫ জামাতের পরীক্ষায় মাদরাসায় নেয়া হয়।

সেমিস্টার পদ্ধতিতে বৎসরে তিনটি পরীক্ষা নেয়া হয়। ফাইন্যাল বা বাৎসরিক পরীক্ষায় পূর্ণ সিলেবাসের পরীক্ষা নেয়া হয়।

★ইবতিদায়ী থেকে তাকমীল পর্যন্ত প্রতিটি ক্লাসের প্রত্যেক কিতাব গুরুত্বের সাথে (দিরায়াতান) সমাপ্ত করা হয়।

★ ক্লাস হাজিরা ছাড়াও তা’লীমাত বিভাগের যিম্মাদারগণ প্রতিদিন প্রত্যেক ক্লাসের আলাদাভাবে হাজিরা নেন।

★ ফাইন্যাল জামাতের আলাদা আলাদা যিম্মাদার থাকেন। বোর্ড পরীক্ষার ফলাফলের ব্যাপারে এরা দায়বদ্ধ থাকেন।

পাঠ্যক্রম :

কিতাব বিভাগে দারসে নেজামী, আযাদ দ্বীনী এদারা বোর্ড ও তানযীমুল মাদারিস বোর্ডের নেসাবভুক্ত কিতাবাদি পড়ানো হয়। এছাড়াও গায়র ফাইন্যাল জামাতে সময়ের চাহিদা অনুপাতে বিভিন্ন কিতাব অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

হাদীস, তাফসীর, উলুমুল কুরআন, উসূলুল হাদীস, ফিক্বহ, উসূলুল ফিক্বহ, ফারাইয (মিরাস) , সারফ, নাহু, বালাগাত, ইনশা, আদব, মানতিক, বাংলা, ইংরেজি, গণিত, ইতিহাস, ভূগোল, হস্তলিপি ইত্যাদি শাস্ত্রীয় আঙ্গিকে পড়ানো হয়।

পাঠদান পদ্ধতি :

সানাবিয়্যাহ আম্মাহ ১ম (হেদায়াতুন্নাহু)  পর্যন্ত জামাতে প্রতিটি কিতাব হাতেকলমে শিক্ষা দেয়া হয়। তামরীন বা অনুশীলনের উপর সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়া হয়। ফন্নি হাইসিয়াতে প্রতিটি কিতাব শিক্ষাদান করা হয়।

সানাবিয়্যাহ আম্মাহ ২য় বর্ষ (কাফিয়া)  থেকে তাকমীল পর্যন্ত প্রত্যেক জামাতের প্রতিটি কিতাব এবারত হল করে প্রাসঙ্গিক আলোচনাসহ দারস দেয়া হয়। প্রতিটি কিতাব বিল ইসতিয়া’ব (আদ্যোপান্ত ভালোভাবে)  পড়ানো হয়। লম্বা নেসাবের কিতাবগুলো ক্লাসটাইমে পাঠদানের পাশাপাশি রাত্রেও পড়ানো হয়।

ক্লাসরুটিন :

ক্লাস শুরু হয় সকাল ১০ টায়। প্রতিদিন মোট আটটি পিরিয়ড হয়। প্রতিটি পিরিয়ড ৩৫/৪০ মিনিটের হয়। ছয় পিরিয়ড পড়ানোর পর জুহরের নামাজ হয়। বৃহস্পতিবার ৩০ মিনিটের পিরিয়ড হয়।

শিক্ষাবোর্ড :

তিনটি বোর্ডের অধীনে জামিয়ার শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালিত হয়।

(১) আল হাইআতুল উলয়া লিল জামিয়াতিল কাওমিয়াহ বাংলাদেশ

(২) আযাদ দ্বীনী এদারায়ে তা’লীম বাংলাদেশ

(৩) তানযীমুল মাদারিস সিলেট বিভাগ।

আল হাইআতুল উলয়া লিল জামিয়াতিল কাওমিয়াহ বোর্ডে তাকমীল ফিল হাদীসের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

আযাদ দ্বীনী এদারায়ে তা’লীম বাংলাদেশ বোর্ডে ফজিলত ২য় বর্ষ, সানাবিয়্যাহ উলয়া ২য় বর্ষ, সানাবিয়্যাহ আম্মাহ ২য় বর্ষ, মুতাওয়াসসিতা ৩য় বর্ষ, ইবতিদায়ী ৫ম বর্ষ এবং হিফজ তাকমীলের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

তানযীমুল মাদারিস সিলেট বিভাগের অধীনে সানাবিয়্যাহ আম্মাহ ১ম বর্ষ, মুতাওয়াসসিতা ২য় বর্ষ এবং হিফজ ১৫ পারার পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রত্যেক মারহালায় একটি করে ফাইন্যাল জামাত আছে, এই জামাত বোর্ড পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে থাকে।

মারহালা তাকমীলে- তাকমীল ফিল হাদীস আল হাইআতুল উলয়া লিল জামিয়াতিল কাওমিয়া বোর্ডের ফাইন্যাল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে।

মারহালা ফজিলতে ফজিলত ২য় বর্ষ, মারহালা সানাবিয়্যাহ উলয়ায় সানাবিয়্যাহ উলয়া ২য় বর্ষ, মারহালা সানাবিয়্যাহ আম্মায় সানাবিয়্যাহ আম্মাহ ১ম ও ২য়, মারহালা মুতাওয়াসসিতায় মুতাওয়াসসিতা ৩য় ও ২য়, মারহালা ইবতিদায়ীতে ইবতিদায়ী ৫ম, মারহালা তাহফিজুল কুরআনে হিফজ তাকমীল ও হিফজ ১৫ পারা।